রাতে শিক্ষকের দেওয়া ফুচকা খেয়ে অসুস্থ দুই কিশোরী।

রাতে শিক্ষকের দেওয়া ফুচকা খেয়ে অসুস্থ দুই কিশোরী।

পঞ্চগড়ে মাদ্রাসা শিক্ষকের দেওয়া ফুচকা খেয়ে দুই কিশোরী অসুস্থ্য হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছে। শনিবার ১৪ মে রাত ১০ টার দিকে পঞ্চগড় পৌরসভার রৌশনাবাগ এলাকায় রফিকুলের বাড়িতে এই ঘটনা ঘটে। অসুস্থ্যরা হলেন রৌশনাবাগ এলাকার রফিকুল ইসলামের মেয়ে রহিমা (১৪) এবং আব্দুর রাজ্জাকের মেয়ে রেখা (১৫)। দুজনেই খালাত বোন। বর্তমানে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে তাদের চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। এই ঘটনায় অভিযুক্ত শিক্ষককে থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয়রা জানান রৌশনাবাগ এলাকার রফিকুলের বাড়িতে সদর উপজেলার বঙ্গবন্ধু আলীম মাদ্রাসার শিক্ষক নুর আলম যাতায়াত ছিল। সেই সুবাদে গতকাল রাতে রফিকুলের বাড়িতে ফুচকা নিয়ে যায়। পরে ফুচকা খাওয়ার কিছুক্ষন পর দুই কিশোরি মাতলামি শুরু করেন। এ সময় দুই কিশোরির পরিবার গতকাল রাত ১১ টার দিকে তাদেরকে পঞ্চগড় আধুনিক সদর হাসপাতালে ভর্তি করেন । পরে পুলিশ খবর পেয়ে মৌলভি শিক্ষককে ঘটনাস্থল থেকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য থানায় নিয়ে আসেন।

পঞ্চগড় সদর আধূনিক হাসপালের আবাসিক মেডিকেল অফিসার ডাক্তার রাকিবুল হাসান জানায়, ফুচকা খেয়ে অসুস্থ দুজনের অবস্থা আশঙ্কা জনক। তাদের নিবিড় পর্যবেক্ষনে রাখা হয়েছে।

পঞ্চগড় সদর থানার ওসি আব্দুল লতিফ মিঞা জানান ফুচকা খাওয়া নিয়ে দুই কিশোরি অসুস্থ্য হয়ে হাসপাতালে ভর্তির খবর পেয়ে রৌশনাবাগ এলাকার রফিকুলের বাড়িতে খোঁজ নেওয়া হয়। সেই সাথে অভিযুক্ত শিক্ষক নুর আলম কে রফিকুলের বাড়ি থেকে থানায় নিয়ে এসে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। দুই কিশোরীর পরিবারদের থানায় ডাকা হচ্ছে তাদের অভিযোগের ভিত্তিতে তদন্ত করে পরবর্তিতে আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.