প্রেমিকের বিয়ের খবরে বিষপান, মাকে হারিয়ে কাঁদছে অবুঝ শিশু।

প্রেমিকের বিয়ের খবরে বিষপান, মাকে হারিয়ে কাঁদছে অবুঝ শিশু।

google news
প্রেমিকের বিয়ের খবরে বিষপান, মাকে হারিয়ে কাঁদছে অবুঝ শিশু
দীর্ঘ দিন ধরে স্বামী থাকেন কাতারে। স্বামীর অনুপস্থিতিতে প্রতিবেশী যুবকের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন গৃহবধূ। মোবাইল ফোনে চলতে থাকে তাদের মন দেওয়া-নেওয়া। তবে তা বেশি দিন গোপন থাকেনি। দুই পরিবারে বিষয়টি জানাজানি হলে শুরু হয় অশান্তি। পরে ওই যুবকের অন্যত্র বিয়ে ঠিক করে। প্রেমিকের বিয়ের বিষয়ে জানতে পেরে গৃহবধূ বিষপান করে প্রেমিককে ফোনে জানায়। পরে প্রেমিকও বিষপান করে।

শনিবার (১৪ মে) সকাল ১০টার দিকে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার জুডানপুর ইউনিয়নের মজলিসপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। ৩০ মিনিটের ব্যবধানে দুজনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। শনিবার রাত ১২টা ১০ মিনিটের দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় গৃহবধূর মৃত্যু হয়।

ADVERTISEMENT

মৃত গৃহবধূর নাম শাপলা খাতুন। তিনি মজলিসপুর গ্রামের মসজিদপাড়ার জাহিদ হোসেনের স্ত্রী। সাকিব একই গ্রামের পূর্বপাড়ার খোকনের ছেলে।

প্রতিবেশীরা জানায়, শাপলা খাতুনের আট বছরের একটি পুত্রসন্তান রয়েছে। স্বামী জাহিদ হাসান দীর্ঘ ৫ বছর ধরে কাতার প্রবাসী। এরই মাঝে প্রতিবেশী সাকিবের সঙ্গে পরকীয়া প্রেমে জড়িয়ে পড়েন শাপলা। পরকীয়া সম্পর্কের কথা সাকিবের পরিবারের সদস্যরা জানতে পেরে তাকে অন্যত্র বিয়ে দেওয়ার কথা ঠিক করে।

এদিকে সাকিবের বিয়ের বিষয়ে জানতে পেরে শনিবার সকালে শাপলা খাতুন বিষপান করে মোবাইলে সাকিবকে জানায়। এ সময় সাকিব তার ভাইদের সঙ্গে মাঠে কৃষি কাজ করছিলেন। প্রেমিকার বিষপানের খবর পেয়ে তিনিও বিষপান করেন। পরে তাদের দুজনকে উদ্ধার করে চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। রাত ১২টা ১০ মিনিটের দিকে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শাপলা খাতুনের মৃত্যু হয়।

এদিকে মায়ের মৃত্যুতে হাসপাতাল চত্বরে আট বছরের শিশুসন্তান কান্নায় ভেঙে পড়ে। অপলক দৃষ্টিতে তাকিয়ে থাকে মায়ের নিথর দেহের দিকে। অবুঝ শিশুর কান্না দেখে দুই পরিবারের সদস্যরাও কান্নায় ভেঙে পড়েন।

ADVERTISEMENT

স্থানীয় ইউপি সদস্য মঈনুদ্দিন ঢাকা পোস্টকে বলেন, শুনেছি দুজন বিষপান করেছে। ঘটনার কারণ স্পষ্ট নয়। তবে লোকমুখে শুনতে পাচ্ছি, তারা ফোনে কথা বলত। ধারণা করা হচ্ছে, পরকীয়া প্রেমের জের ধরেই এ ঘটনা ঘটেছে।

চুয়াডাঙ্গা সদর হাসপাতালের জরুরি বিভাগের কর্তব্যরত চিকিৎসক ডা. হাসনাত পারভেজ শুভ ঢাকা পোস্টকে বলেন, সকালে দুজনের পাকস্থলি ওয়াশ করে ভর্তি করা হয়। রাত ১২টা ১০ মিনিটে শাপলা খাতুনকে মৃত ঘোষণা করা হয়। সাকিব শঙ্কামুক্ত কি না এখনি বলা সম্ভব নয়। শাপলা খাতুনের মরদেহ হিমঘরে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানায় জানানো হবে।

দামুড়হুদা মডেল থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) ফেরদৌস ওয়াহিদ ঢাকা পোস্টকে বলেন, সদর হাসপাতাল থেকে বিষপানে এক নারী মৃত্যুর খবর জেনেছি। বিস্তারিত জানতে ঘটনাস্থলে পুলিশের একটি দল পাঠানো হয়েছে। ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের নির্দেশনা অনুযায়ী পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


Leave a Reply

Your email address will not be published.